ঢাকা, বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ কার্তিক ১৪২৯, ২৯ জ্বিলক্বদ ১৪৪৩

অ্যান্টিগায় নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে খুশি বাংলাদেশ


প্রকাশ: ১৩ জুন, ২০২২ ১১:১৩ পূর্বাহ্ন


অ্যান্টিগায় নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে খুশি বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: অ্যান্টিগায় ক্রিকেট উইন্ডিজ প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে তিন দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। টেস্ট সিরিজের আগে এটিই ছিল টাইগারদের মূল প্রস্তুতি। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাদা পোশাকের সিরিজ শুরুর আগে এই প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে সফরকারীরা। যেখানে নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে খুশি বাংলাদেশ দল।

কুলিজ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে গত শুক্রবার (১০ জুন) শুরু হওয়া ম্যাচটি শেষ হয় রোববার। ফলাফল নিষ্প্রাণ ড্র হলেও ব্যাট-বলে প্রস্তুতিটা ভালোভাবেই সেরে নিয়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। অ্যান্টিগা থেকে এক ভিডিও বার্তায় সেটিই জানালেন এবাদত হোসেন।

জাতীয় দলের এই পেসার বলছিলেন, ‘আমরা তিন দিনের একটা অনুশীলন ম্যাচ খেললাম। এটা শেষ হলো। প্রস্তুতি হিসেবে আলহামদুলিল্লাহ সবার ভালোই প্রস্তুতি হয়েছে। আমাদের ব্যাটসম্যানরা খুব ভালো ব্যাটিং করেছে। তামিম ভাই দেড়শ (১৬২*) রান করেছে এবং শান্ত পঞ্চাশ (৫৪) রান করেছে। এবং আমাদের ব্যাটিং অর্ডারের সবাই ভালো ব্যাটিং করেছে।’

ম্যাচে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেট হারিয়ে স্কোর বোর্ডে ৩১০ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ দল। তামিম অপরাজিত থাকেন ১৬২ রানে। ২৮৭ বলে ২১টি চার ও ১টি ছয়ের মার ছিল তার ব্যাটে। শান্ত খেলেন ৫৪ রানের ইনিংস।

এরপর ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ৩৫৯ রান করার পর নিজেদের ইনিংস ঘোষণা করে ক্রিকেট উইন্ডিজ প্রেসিডেন্ট একাদশ। তাদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯২ রান করেন ওপেনার জেরেমি সোলোজানো। 

প্রায় এক বছরের বেশি সময় পর লাল বলের ক্রিকেটে ফেরার দিনে উজ্জ্বল ছিলেন বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। প্রস্তুতি ম্যাচের শেষ দিনে মাত্র ৬ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। আরেক পেসার এবাদত হোসেন নেন ৩টি। বাকি দুই পেসার খালেদ আহমেদ আর রেজাউর রহমান রাজা ১টি করে উইকেট শিকার করেন। স্পিনার তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান, মুমিনুল হক, নাজমুল হোসেনরা ছিলেন উইকেটশূন্য।

বোলারদের পারফরম্যান্স নিয়ে এবাদত বলেন, ‘বোলিংয়ের দিক থেকে আমরা সবাই ভালো বোলিং করেছি, ভালো শুরু হয়েছে। মুস্তাফিজ যোগ দিয়েছে, প্রথম ওভারে দুই উইকেট। ফাইনালি পাঁচ (৬) ওভারে তিন উইকেট পেয়েছে। তো প্রস্তুতি হিসেবে এই তিন দিনের ম্যাচটা আমরা খুব উপভোর করেছি।’
পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে ২০১৮ সালের পর আবার উইন্ডিজ সফরে গেছে বাংলাদেশ দল। যেখানে ২ টেস্টের সঙ্গে সমান ৩টি করে টি-টোয়েন্টি আর ওয়ানডে সিরিজ খেলবে সফরকারীরা। সাদা পোশাকের ফরম্যাট দিয়ে ১৬ জুন মাঠে গড়াবে দুই দলের লড়াই। 


   আরও সংবাদ