ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১২ চৈত্র ১৪২৭, ১০ রবিউল সানি ১৪৪২

চৌগাছায় বিনামূল্যে সার-বীজ পেলেন ১৪৪৫ কৃষক


প্রকাশ: ২১ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন


চৌগাছায় বিনামূল্যে সার-বীজ পেলেন ১৪৪৫ কৃষক

 

 

চৌগাছা থেকে  মোঃ ফখরুল ইসলাম:  যশোরের চৌগাছায় ১ হাজার ৪৪৫ কৃষককে বিনামূল্যের প্রণোদনার বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে।

চলতি অর্থবছরের রবি ও খরিপ-১ মৌসুমে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের রবি শস্য এবং বোরো আবাদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় এই বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ করা হয়।

শনিবার বিকেলে উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ হলরুমে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই বীজ বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রকৌশলী এম. এনামুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অব.) ডাক্তার নাসির উদ্দিন।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ড. মোস্তানিছুর রহমান। স্বাগত বক্তৃতা করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এম রইচ উদ্দিন।

আলোচনার শেষে উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার ১ হাজার ৪’শ ৪৫ জন কৃষকের মধ্যে বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণের উদ্বোধন করা হয়।

উপজেলা কৃষি অফিসার এম রইচ উদ্দিন বলেন, এবছর উপজেলায় কৃষি প্রণোদনা পাচ্ছেন মোট ১ হাজার ৪৪৫ জন কৃষক। এদের মধ্যে ১ কেজি করে বোরো হাইব্রিড (এসএলএইচএইচ) ধানের বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ৪৭০ জন, ১ কেজি করে সরিষা বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ৪৫০ জন, ২ কেজি করে ভূট্টা বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি করে এমওপি পেয়েছন ১৩০ জন, ৫ কেজি করে মূগ ডালের বীজ, ১০ কেজি করে ডিএপি ও ৫ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ১০ জন, ১ কেজি করে সূর্যমুখী বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ৪০ জন, ৮ কেজি করে খেসারির বীজ, ৫ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ৬০ জন, ২’শ ৫০ গ্রাম করে পেঁয়াজের বীজ, ৫ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ৩০ জন , ৩’শ গ্রাম করে মরিচের বীজ, ১০ কেজি করে ডিএপি ও ৫ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ৫০ জন, ৫০ গ্রাম করে টমেটোর বীজ, ১০ কেজি করে ডিএপি ও ৫ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ১৫০ জন। এছাড়াও ২০ কেজি করে গমের বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি করে এমওপি সার পেয়েছেন ৫৫ জন কৃষক।
 
উপজেলা কৃষি অফিসার রইচ উদ্দিন আরো বলেন, প্রত্যেক কৃষক এক বিঘা করে জমি চাষের জন্য এই বীজ ও সার পাচ্ছেন।

বীজ ও সার পাওয়ার পর প্রতিক্রিয়ায় উপজেলার জগদীশপুর ইউনিয়নের আড়পাড়া গ্রামের ইউপি সদস্য লিটন হোসেন বলেন, বর্তমান কৃষি অফিসারের সময়ে আমরা সুষম বন্টনের মাধ্যমে প্রণোদনার বীজ ও সার পাচ্ছি। তিনি আমাদের এবং কৃষকদের সাথেও খুবই ভালো ব্যবহার করে থাকেন। কৃষি বিষয়ে যে কোন সমস্যায় তার কাছে গেলে তিনি আন্তরিকতার সাথে সমাধান করে দেন। আমার ওয়ার্ড এলাকার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা বুলবুলি খাতুন আমাদের সাথে সমন্বয় করে কৃষকদের নানা সমস্যার সমাধান দিচ্ছেন। সরকারের এই কার্যক্রমে কৃষকদের পাশাপাশি আমরাও সন্তষ্ট।

 


   আরও সংবাদ