ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১ রমজান ১৪৪২

মেডিক্যালে এক কলেজে ৪০ শিক্ষার্থীর চান্স

মেডিক্যালে এক কলেজে ৪০ শিক্ষার্থীর চান্স

প্রকাশ: ৭ এপ্রিল, ২০২১ ১২:৫৯ অপরাহ্ন


মেডিক্যালে এক কলেজে ৪০ শিক্ষার্থীর চান্স


সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজ। ঐতিহ্যবাহী একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। উত্তরবঙ্গে এই কলেজটি সমধিক পরিচিত ও ফলাফল বরাবরই ঈর্ষণীয়। প্রতিবছর মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় এখানকার শিক্ষার্থীদের সাফল্য নজরকাড়া। 

এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এখন পর্যন্ত প্রতিষ্ঠান থেকে পাওয়া তথ্যমতে, ৪০ জন শিক্ষার্থী মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। ৪ এপ্রিল (রোববার) এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হলে এমন তথ্য জানা যায়। এ নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকরা। 


জানা যায়, এবছর এইচএসসি পরীক্ষায় সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের ২০৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে সবাই জিপিএ-৫ পেয়ে অটোপাস করেন। তাদের সবাই এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলেন। 

কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজে সুযোগ পাওয়া সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের শিক্ষার্থী মিফতাহুল জান্নাত প্রমি বলেন, ‘খুবই আনন্দ লাগছে, ছোটকালের স্বপ্ন যেন বাস্তবায়নের পথে। এ সুযোগ পাওয়ার পেছনে আমাদের শিক্ষকদের সঠিক দিকনির্দেশনা ছিল।’

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে সুযোগ পাওয়া প্রতিষ্ঠানটির অপর এক শিক্ষার্থী রিয়াত তৌসরিন রিয়া বলেন, ‘অনেক দিনের লালিত স্বপ্ন পূরণ করতে পেরেছি। আমার এই সাফল্যের পেছনে আমার বাবা-মা ও শিক্ষকদের অবদান অনস্বীকার্য।’


কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম আহমেদ ফারুক বলেন, ‘এবার আমাদের কলেজ থেকে ৪০ জন শিক্ষার্থী মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় চান্স পেয়েছে। এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে, কারণ এখনো অনেকের খবর আসছে আমাদের কাছে। শুধু মেডিক্যালে নয়, প্রতিষ্ঠানের অনেক শিক্ষার্থী বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়েও সুযোগ পাবে আমাদের বিশ্বাস।’

প্রসঙ্গত, ১৯৬৪ সালে প্রতিষ্ঠিত সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের পূর্বনাম সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজ। সূচনালগ্ন থেকেই প্রতিষ্ঠানটি ধারাবাহিক সাফল্য দেখিয়ে আসছে। এখানকার শিক্ষার্থীরা প্রতিবছর দাপটের সাথে দেশসেরা সব বিদ্যাপীঠে উচ্চশিক্ষার সুযোগ করে নিচ্ছেন। 

শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ, শিক্ষকদের বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ আর প্রতিষ্ঠান প্রধানের সুদক্ষতা সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের ধারাবাহিক সাফল্যের মূলমন্ত্র বলে অভিমত শিক্ষানুরাগীদের।


   আরও সংবাদ