ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ ফাল্গুন ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদ যবিপ্রবি শাখা কমিটির যাত্রা শুরু


প্রকাশ: ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ০৬:৩৯ পূর্বাহ্ন


বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদ যবিপ্রবি শাখা কমিটির যাত্রা শুরু

স্টাফ রিপোর্টার : আজ অমর একুশে। বায়ান্নোর একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদের রক্ত শত শোকের মাঝেও আমাদের আজ ভাষার অধিকার দিয়েছে। আর সেই গৌরব আজ বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশকে পরিচিত করে তুলেছে। আমাদের হাত ধরেই এ বিশ্ব পেয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। তাই একুশ শব্দটা আমাদের জীবনে এক অসীম তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা। যা আমাদের সার্বিক জাগরণের উৎসমুখও।

একুশের চেতনা কখনও প্রত্যক্ষ, কখনও পরোক্ষভাবে অনুপ্রেরণার সঞ্চারী হিসেবে অন্তরে অনির্বাণ শিখা হয়ে জ্বলে। একুশের চেতনা বারবার সংকটে দিক নির্দেশক, বিভ্রান্তিতে মোহজাল ছিন্নকারী এবং আপাত বন্ধ্যত্বে সৃষ্টিমুখরতার দ্যোতক বলে প্রমাণিত হয়েছে। বাস্তব জীবনে একুশের চেতনাকে ধারণ করে ভাষা শহীদদের স্মরণে বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদ যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির যাত্রা শুরু হয়েছে আজ।

অনুমোদিত কমিটির প্রস্তাবিত সভাপতি সাদাফ সালমান পান্থ, কার্যকরী সভাপতি ইমন হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক এম এ জুবায়ের রনির নেতৃত্বে পরিষদের সদস্যরা প্রথম কর্মসূচি হিসেবে যবিপ্রবি'র প্রধান অভিভাবক ও বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদের প্রস্তাবিত উপদেষ্টা উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী আহসান হাবীব এবং ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের পরিচালক ড. আলম হোসেনকে নবগঠিত কমিটির পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করেন।

এরপর কর্মসূচির দ্বিতীয় অংশে পরম শ্রদ্ধার সঙ্গে বাংলাভাষার মর্যাদাপ্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে নেতৃত্বদানকারী সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল ভাষা সৈনিকদের, যাদের দূরদর্শী ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তে এবং সর্বোচ্চ আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমাদের মা, মাটি ও মানুষের অস্তিত্ব রক্ষা হয়েছে। তাদের স্মরণে কমিটির সদস্যরা রাত ১২ টা ০১ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে পুষ্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করেছে। 

এ সময়ে বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদের অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ যবিপ্রবি শাখার পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন কার্যনিবার্হী কমিটির সাধারণ সম্পাদক ড. আলম হোসেন, আমজাদ হোসেন ড. ইঞ্জি., নাজমুল হোসেন, বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদের নেতা সাদ আহমেদ, জাওয়াদুল ওমর রিফাত, সাজ্জাদ আলী সবুজ, আবদুল্লাহ আল নাইম, তানিয়া সুলতানা শ্রাবনী, জোনায়ের হোসেন, সাগর আলীসহ পরিষদের অন্যান্য নেতা-নেত্রী বৃন্দ। 

একুশের চেতনা ধারণ করে পৃথিবীর নানা ভাষাভাষী মানুষের সাথে নিবিড় যোগসূত্র স্থাপিত হোক, লুপ্তপ্রায় ভাষাগুলো আপন মহিমায় নিজ-নিজ সম্প্রদায়ের মধ্যে উজ্জীবিত হোক, গড়ে উঠুক নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতির বর্ণাঢ্য বিশ্ব। মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে এই প্রত্যাশা রেখেছেন পরিষদের নেতা-নেত্রী বৃন্দ।


   আরও সংবাদ