ঢাকা, সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৭, ১৪ রবিউল সানি ১৪৪২

এমপি রেজাউলের বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার


প্রকাশ: ২০ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:৩৯ পূর্বাহ্ন


এমপি রেজাউলের বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার

স্টাফ রিপোর্টার: গত ১৭ নভেম্বর ২০২০ বগুড়া-৭ আাসনের এমপি রেজাউল করিম বাবলু ধর্ষণের সর্বোাচ্চ শান্তি মূত্যুদ-ের বিধান রেখে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধন বিল-২০০০ পাশের সময় মহান জাতীয় সংসদে ধর্ষণের জন্য নারীবাদীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন সেই সংসদে দাঁড়িয়ে যে সংসদের স্পীকার একজন নারী, প্রধানমন্ত্রী নারী এবং বিরোধী দলীয় নেত্রীও নারী। .


তিনি ধর্ষন বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য শুধু নারীবাদীদেরই দোষারোপ করেন নাই উপরোন্ত যৌন নিপীড়ন রোধে নারীদেরে পর্দার অন্তরালে রাখার কথা হেফাজত ইসলামের প্রয়াত আমির শাহ আহমদ শফির বক্তব্যকে সমর্থন করেছেন। বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার পক্ষ থেকে এমপি রেজাউল করিম বাবলুর এই বক্তব্য ঘূণাভরে প্রত্যাখান করছে ও এর তীব্র প্রতিবান জানাচ্ছে। সেই সাথে মহান জাতীয় সংসদের মাননীয় স্পীকার, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বিরোধী দলীয় নেতা, নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী ও উপস্থিত সকল মাননীয় সাংসদ এমপি রেজাউল করিম বাবলুর বক্তব্যের প্রতিবাদ না করে  নিরব থাকায় বিষ্ময় প্রকাশ করছে।

বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা প্রতিষ্ঠাকাল থেকে ধর্ষণের বিরুদ্ধে আন্দোলন এবং ধর্ষণের শিকার নারী ও শিশুদের আইনী সহায়তা প্রদান করে আসছে। সংস্থা ধর্ষণের ঘটনা বিশ্লেষন করে দেখেছে পর্দানশীল মাদ্রাসা ছাত্রী প্রতিনিয়ত ধর্ষণের শিকার হচ্ছে। আবার মাদ্রাসার শিক্ষক যারা তথাকথিত শফি হুজুরের অনুসারী তারা পর্দানশীল নারী ও শিশুদের ধর্ষণ করছে। সংস্থা মনে করে ধর্ষণের কারণ পর্দা নয়।

“ফৌজদারী অপরাধের অস্বচ্ছ ও বিলম্বিত বিচার প্রক্রিয়া ধর্ষণ বৃদ্ধির অন্যতম কারন। ফৌজদারী অপরাধের বিচার প্রক্রিয়ার মধ্যে (পুলিশ, আদালত, প্রসিকিউশন ও কারাগার) পুরুষতান্ত্রিক, সামন্ততান্ত্রিক, উপনিবেশিক উপাদান বজায় রয়েছে” বলেই ধর্ষণের ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা জাতীয় সংসদে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মূত্যুদণ্ডের বিধান রেখে আইস সংশোধন সমর্থন করছে সেইসাথে এমপি রেজাউল করিম বাবলুর বক্তব্য ঘৃণাভরে  প্রতিবাদ ও প্রত্যাখান করছে। তার বক্তব্যে নারী সমাজকে হেও করা হয়েছে। সংস্থা তার বক্তব্য জাতীয় সংসদের রেকর্ড থেকে এক্সপা  করা দাবী জানাচ্ছে সেই সাথে এমাপি রেজাউল করিম বাবলুকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে জাতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনার আহবাদ জানাচ্ছে।


   আরও সংবাদ