ঢাকা, শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২১ চৈত্র ১৪২৭, ১৯ রবিউল সানি ১৪৪২

বশেমুরবিপ্রবি'তে শেখ রাসেলের জন্মদিন উদযাপিত হয়েছে


প্রকাশ: ১৮ অক্টোবর, ২০২০ ০৯:২০ পূর্বাহ্ন


বশেমুরবিপ্রবি'তে শেখ রাসেলের জন্মদিন উদযাপিত হয়েছে

বশেমুরবিপ্রবি থেকে খাদিজা জাহান : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শেখ রাসেল হলে সীমিত আকারে কেক কাটা ও মিষ্টি বিতরণের মাধ্যমে পালিত হলো জাতির পিতার কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৭ তম জন্মদিন।

রোববার (১৮ অক্টোবর) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ রাসেল হলের ডাইনিংয়ে জন্মদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট ফায়েকুজ্জামান মিয়া, সহকারী প্রভোস্ট রাজিব হোসেন, শরিফুজ্জামান, হাসেম রেজা, বাপন চন্দ্র কুরিসহ আরো অনেকে।

এ সময় প্রভোস্ট মোঃ ফায়েকুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘শহীদ শেখ রাসেল আজ বাংলাদেশের শিশু-কিশোর, তরুণ, শুভবুদ্ধিবোধ সম্পন্ন মানুষদের কাছে ভালোবাসার নাম। অবহেলিত, পশ্চাৎপদ, অধিকার বঞ্চিত শিশুদের আলোকিত জীবন গড়ার প্রতীক হয়ে গ্রাম-গঞ্জ-শহর তথা বাংলাদেশের বিস্তীর্ণ জনপদ-লোকালয়ে শেখ রাসেল আজ এক মানবিক সত্ত্বায় পরিণত হয়েছেন। 

মানবিক চেতনা সম্পন্ন সকল মানুষ শেখ রাসেলের মর্মান্তিক বিয়োগ বেদনাকে হৃদয়ে ধারণ করে বাংলার প্রতিটি শিশু-কিশোর তরুণের মুখে হাসি ফোটাতে আজ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’ এসময় তিনি ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পরিবারের সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

এছাড়াও শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে সাথে নিয়ে কেক কাটার পর উপস্থিত সকলের মাঝে মিষ্টি ও মাস্ক বিতরণ করা হয়।

প্রসঙ্গত, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আদরের ছোট ভাই শেখ রাসেল ১৯৬৪ সালের এই দিনে ধানমন্ডির ঐতিহাসিক স্মৃতি-বিজড়িত বঙ্গবন্ধু ভবনে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট মানবতার শত্রু ঘৃণ্য ঘাতকদের নির্মম বুলেট থেকে রক্ষা পাননি শিশু শেখ রাসেলও। বঙ্গবন্ধু এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে নরপিশাচরা তাকেও নির্মমভাবে হত্যা করেছিল।


   আরও সংবাদ