ঢাকা, শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৭, ১৯ রবিউল সানি ১৪৪২

য‌শোর শিক্ষা‌বো‌র্ডে অনলাইনে সনদপত্র বিতরণ শুরু


প্রকাশ: ৬ অক্টোবর, ২০২০ ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন


য‌শোর শিক্ষা‌বো‌র্ডে অনলাইনে সনদপত্র বিতরণ শুরু

যশোর থেকে খান সাহেব : সংশোধিত সনদপত্র বিতরণের মধ্যদিয়ে গতকাল উদ্বোধন হয়েছে যশোর শিক্ষা বোর্ডের অনলাইন সনদপত্র বিতরণ কার্যক্রম। উদ্বোধনী দিনে ঘরে বসে সনদপত্র পেল খুলনা জিলা স্কুলের ছাত্র আফসি অর রিহান। সনদ পেয়ে সে বোর্ডের চেয়ারম্যানকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। 

রিহান জেএসসি ও এসএসসি সনদপত্রের নামের সংশোধিত কপি পায়। এদিন খুলনার ডুমুরিয়ার মির্জাপুর সেকেন্ডারি স্কুলের ছাত্রী চম্পা মন্ডলও অনলাইনে সনদ পেয়েছে।

শিক্ষা বোর্ডের সভা কক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোল্লা আমীর হোসেন। তিনি বলেছেন এক সময় নাম বয়স সংশোধনের জন্য তদবির করাসহ অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে শিক্ষার্থীদের। এখন আর সেটা হবে না। শিক্ষার্থীরা অনলাইনে নাম, বয়স সংশোধন ও দ্বিনকল সনদ নেয়ার জন্য তাকে আবেদন করবে। এজন্য বোর্ড নির্ধারিত ফি দিলেই হবে। 

বাড়তি কোনো টাকা দিতে হবে না। এরপর বোর্ড কর্তৃপক্ষ সংশোধন বা দ্বিনকল সার্টিফিকেট লেখার কাজ সম্পন্ন করে অনলাইনে পৌঁছে দেবে। শিক্ষার্থীরা সেটা প্রিন্ট করে নিতে পারবে। পরে মূল কপি তাকে বা হাতে হাতে দেয়া হবে। এর মধ্যদিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল ও শোষণমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে যশোর শিক্ষা বোর্ড সকল সেবা অনলাইনে দিচ্ছে।

এ সময় বক্তব্য রাখেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র, যশোর শিক্ষা বোর্ড সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ লে.কর্নেল গোলাম মোস্তফা, খুলনার সৈয়দ আরশাদ আলী এন্ড সবুরুন্নেছা গালর্স কলেজের অধ্যক্ষ এসএম আমজাদ হোসনে। 

উপস্থিত ছিলেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের সচিব আলী আর রেজা, উপপরিচালক (হিওনি) এমদাদুল হক, প্রধান মূল্যায়ন অফিসার মিজানুর রহমান, বিদ্যালয় পরিদর্শক ড. বিশ্বাস শাহীন আহমেদ, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ডকুমেন্ট ফজলুল হক, সহকারী সচিব একাডেমি সাইফুল ইসলাম, সহকারী সচিব (প্রশাসন) মুজিবুল হক, উপসহকারী প্রকৌশলী কামাল হোসেন, ঝিকরগাছার সরকারি এমএল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজযর রহমান আজাদ, খুলনা দৌলতপুরের মশে^রপাশা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিতারানী বাগচী, খুলনার সৈয়দ আরশাদ আলী এন্ড  সবুরুন্নেছা গালর্স কলেজের প্রভাষক সুমাইয়া রহমান প্রমুখ।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র বলেছেন শিক্ষা বোর্ড প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে এ পর্যন্ত যত শিক্ষার্থী পাস করেছে তারা নাম সংশোধন বা দ্বিনকল সার্টিফিকেট নেয়ার জন্য আবেদন করলে তাকেই অনলাইনে দেয়া হবে।


   আরও সংবাদ