ঢাকা, বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ কার্তিক ১৪২৯, ২৯ জ্বিলক্বদ ১৪৪৩

ইনক্লুসিভ পদ্ধতিতে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী


প্রকাশ: ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২২ ০৫:০২ পূর্বাহ্ন


ইনক্লুসিভ পদ্ধতিতে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) সব কিছুতেই না বলছে মন্তব্য করে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. হাসান মাহমুদ বলেছেন, একটি গণতান্ত্রিক দেশে আজ কত সচ্ছ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হচ্ছে। তারপরও বিএনপির "না"।
 
আজ মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে পিআইবির অডিটেরিয়ামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে কল্যাণ অনুদান ও করোনাকালীন আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, এমন ইনক্লুসিভ পদ্ধতিতে দেশে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হচ্ছে, যা কেউ আশপাশের কোনো দেশের উদাহরণ দিতে পারবে না। অনেক পুরাতন গণতান্ত্রিক দেশ হলেও কেউ উদাহরণ দিতে পারবে না। এমন ভাবে সার্চ কমিটি রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও সমাজের মধ্যে পরিচিত তাদের সঙ্গে বসেছে। 

 

তিনি বলেন, এখানে আমরা দেখেছি বিএনপি ঘরোনার বুদ্ধিজীবীরাও গেছে। এছাড়া সারাক্ষণ বিএনপি'র পক্ষে কথা বলেন তারাও গেছেন। তারাও বলেছে বিএনপি'র আসলেই নাম গুলো দেওয়ার দরকার ছিল। অথচ বিএনপি সব কিছুকে না বলছে, এটা গণতন্ত্রকে না বলার শামিল।

তথ্য মন্ত্রী বলেন, একটি গণতান্ত্রিক দেশে ক্ষমতাসীন দল ও বিরোধী দল উভয়ের ভূমিকা থাকে। কিন্তু বিরোধীদলের কোন ব্যর্থতা সংবাদ মাধ্যমে আসে না। এখন শুধু সরকারি দলের নিউজই হয়। গণমাধ্যমগুলো সফলতা আসলেই জনগণের দেখায়। আর ব্যর্থতা সরকারের ঘাড়ে চাপাই।

বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুভাষ চন্দ্রের (বাদল) সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী মন্ত্রণালয়ের সচিব মকবুল হোসেন।

বিএফইউজের মহাসচিব দীপ আজাদের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সংবাদ এর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কাশেম হুমায়ুন, বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক, ডিইউজের সভাপতি কুদ্দুস আফরাদ, পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ ও বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম কবির।

২০২১-২২ অর্থবছরে অসহায়, অসুস্থ ও মৃত্যু সংবাদিক পরিবারের সদস্যসহ ৩০৪ জন ব্যক্তিকে দুই কোটি ৭৬ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকায় ১২৪ জন্য ব্যক্তিকে দেওয়া হয়েছে দুই কোটি ৯ লাখ টাকা। আর সারাদেশে দেওয়া হয়েছে ৬৭ লাখ টাকা।

বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে গত ৯ বছরে অসুস্থ, অসচ্ছল, দূর্ঘটনা জনিত আহত ও মৃত সাংবাদিক পরিবারের সদস্যসহ এক হাজার ৯২২ জন ব্যক্তিকে ১৭ কোটি টাকা প্রদান করা হয়েছে। এ ছাড়া চলমান করোনা মহামারীর মধ্যে পাঁচ হাজার  ৮৮৮ জন সাংবাদিক ও তাদের পরিবারের মাঝে ১৩ কোটি ৩৫ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে।

বর্তমানে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের তহবিল সিড মানি ৪৯ কোটি ৬৩ লাখ ২৭ হাজার ৮১ টাকা জমা আছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এছাড়া সাংবাদিকদের মেধাবী সন্তানদের শিক্ষার জন্য এককালীন মঞ্জুর, বৃত্তিসহ স্টাইপেন্ড প্রদানের খসড়া নীতিমালা চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।


   আরও সংবাদ