ঢাকা, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ ফাল্গুন ১৪২৭, ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

যবিপ্রবির ছাত্র হলে একাধিক চুরি, সন্ধান মিলছে না চোরের


প্রকাশ: ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৭:৫০ পূর্বাহ্ন


যবিপ্রবির ছাত্র হলে একাধিক চুরি, সন্ধান মিলছে না চোরের

   

যবিপ্রবি থেকে  নাজিম উদ্দিন : যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের  (যবিপ্রবি) ছাত্র হল (শহীদ মসিয়ূর রহমান হল) থেকে কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের ৪১৪ নং কক্ষের ম্যানেজমেন্ট বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আসিব হাসানের কম্পিউটার চুরি হয়েছে বলে অভিযোগ করেন আসিব হাসান। এর আগেও এবং করোনাকালীন সময়ে শহীদ মসিয়ূর রহমান হলে চুরির ঘটানা ঘটেছে। এ নিয়ে একাধিক চুরির ঘটনা ঘটল কিন্তু খোঁজ মিলছে না চোরের।

করোনার কারনে দীর্ঘদিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাকার্যক্রম বন্ধ রয়েছে,তাই আসিব হাসান গতকাল আনুমানিক দুপুর ১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে  তার রেখে যাওয়া কম্পিউটার  নিতে আসেন। কিন্তু এসে দেখেন তার কম্পিউটার নেই এবং রুমের জিনিসপত্র সব এলোমেলো অবস্থায়  রয়েছে। 

এই বিষয়ে হল প্রভোষ্ট ড. নাজমুল হাসান বলেন, গতকাল চুরির অভিযোগ আসার পরপরই আমরা একটা তদন্ত কমিটি গঠন করেছি এবং ১০ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। 

এছাড়াও আমরা হলের নিরাপত্তা বাড়িয়ে দিয়েছি এবং পুরো হল সিসি টিভি ক্যামেরার আওতায় আনার জন্য আরো ৩০ টি সিসিটিভি ক্যামেরা সংযোজনের জন্য আবেদন করেছি। উক্ত বিষয়ে খুতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং খুব তারাতারি  বিষয়টি জানা যাবে।
 
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, ইতিমধ্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে আর প্রতিবেদন আসলেই আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব। এছাড়াও হলের নিরাপত্তা আরও জোরদার করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা করার সাথে আমরা শিক্ষার্থীদের মূল্যবান জিনিসপত্র তাদের সাথে নিয়ে যাওয়ার নোটিশ দিয়েছি, এরপরও কেউ যদি তার মূল্যবান জিনিসপত্র না নিয়ে যায় সে দায়ভার তাকেই নিতে হবে ।

এছাড়াও দায়িত্বরত গার্ডদের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে উপাচার্য জানান, আমরা সঠিক জানি না ঠিক কবে এই চুরির ঘটনা ঘটেছে। আর যেহেতু একটি নিদিষ্ট সময় পরপর দায়িত্বরত আনসারদের দায়িত্ব পরিবর্তন হয় তাই আমরা এই ব্যাপারে এখনই কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারি না। এছাড়াও যদি কোনো আনসার সদস্য ঘটনার সাথে জড়িত থাকে সেক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের  বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করবে।

 জানা যায়, করোনাকালীন সময়ে যবিপ্রবির ছাত্র হলে এর আগেও ছোটখাটো চুরির ঘটনা ঘঠেছে।এ নিয়ে উক্ত ঘটানার বিভিন্ন আলোচনা সমালোচনা সহ বিরূপ মন্তব্য করা হচ্ছে।আবাসিক হলের নিচতলা থেকে তিনতলা পর্যন্ত সিসিটিভি ক্যামেরার আওতাভুক্ত সেখানে আবার কম্পিউটার চুরি এধরনের ঘটনা কোনোভাবেই কাম্য নয়। 


শিক্ষার্থীদের দাবি, ভবিষ্যতে যেন এরকম ঘটনা আর না ঘটে। এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার ও ক্ষতি পূরণের দাবি করেছে ভুক্তভুগি ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা।


   আরও সংবাদ