ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৭ ফাল্গুন ১৪২৭, ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

পুুলিশের পরিবর্তন দৃশ্যমান হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


প্রকাশ: ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন


পুুলিশের পরিবর্তন দৃশ্যমান হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

   

স্টাফ রিপোর্টার : পুুলিশের পরিবর্তন দৃশ্যমান হচ্ছে, দেশ এগোচ্ছে, পুলিশকেও এগিয়ে নিতে হবে। পুলিশের দক্ষতা বাড়ানোর জন্য যা যা করা দরকার পুলিশ স্টাফ কলেজের মাধ্যমে তাই বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আজ মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেল রাজধানীর মিরপুর ‘পুলিশ স্টাফ কলেজের ১৭তম বোর্ড সভা’ শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

সভার শুরুতে বোর্ড সচিব বলেন, "মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার" এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ভোট সভা অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি বলেন, পুলিশ স্টাফ কলেজে ১৭তম বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোভিডসহ অন্যান্য কারণে বোর্ড সভা বিলম্বে অনুষ্ঠিত হলো। আমরা পর্যালোচনা করেছি, বোর্ড সভায় নতুন যেসব প্রস্তাবনা এসেছিল সেগুলো আমরা দেখেছি। 

যেসব প্রস্তাব বোর্ড সভায় উত্থাপন করা হয়েছে এর সবগুলোই আমাদের কাছে যুক্তিযুক্ত মনে হয়েছে। এগুলোকে বাস্তবায়নের জন্য আমরা সামনে নিয়ে আসার জন্য আলোচনা করেছি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিধিমালা স্পষ্টীকরণ এবং নীতিমালার দুই-একটা জায়গায় চেঞ্জ আসবে। বোর্ড সভা যেসব প্রোপজাল দিয়েছে আমরা সেগুলো পর্যালোচনা, আলোচনা করছি। পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর পদকে উন্নতিকরণ, ভাইস রেক্টর নামে নতুন পদ সৃষ্টি করা, নতুন পদ সৃষ্টি হলে সেটা কিভাবে সৃজিত হবে সেগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

সম্প্রতি নতুন নতুন অপরাধের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, নতুন অপরাধের অধিকাংশ সাইবার ওয়ার্ল্ডে হচ্ছে। সেজন্য পুলিশকে প্রশিক্ষিত করার দরকার। পুলিশ স্টাফ কলেজে বিভিন্ন নতুন কোর্স সংযুক্ত করা হয়েছে। নতুন করে সাইবার সিকিউরিটির ওপর ডিপ্লোমা কোর্স চালু করা হয়েছে। এর বাইরে আরও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ডিপ্লোমা কোর্স চালু করা হচ্ছে। সবগুলো কোর্স বর্তমান প্রয়োজনে কাজে আসবে।  

ইন্সপেক্টর জেনারেল বাংলাদেশ পুলিশের (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে পুলিশ স্টাফ কলেজ কর্তৃক বাস্তবায়িত গবেষণাটি চূড়ান্ত হলে বাংলাদেশ পুলিশ তথা জনতার পুলিশ গঠন করার ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পুলিশ দর্শন বাস্তবায়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

এসময় আইজিপি বেনজীর আহমেদ, বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা, অর্থ, জনপ্রশাসন ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা ও ডিফেন্স সার্ভিসেস কলেজের কমান্ড্যান্টসহ পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর অতিরিক্ত আইজিপি শেখ মুহম্মদ মারুফ হাসান উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, কলেজ প্রতিষ্ঠার পর থেকে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে একটি সুখী-সমৃদ্ধশালী নিরাপদ সমাজ গড়ার প্রত্যয় বাংলাদেশ পুলিশের সিনিয়র কর্মকর্তাদের দক্ষতা ও যোগ্যতা পেশাদারিত্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যে কলেজের শিক্ষা প্রশিক্ষণ ও গবেষণা অব্যাহত রয়েছে। এ সময় বিগত ১৬ তম বোর্ড সভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয়।


   আরও সংবাদ